August 15, 2020, 2:36 am

নোটিশ
সারা বাংলাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

তুমি

লিপিকা দত্ত সরকার
লিপিকা দত্ত সরকার

” তুমি আছো আমি আছি তাই,অনুভবে তোমারে যে পাই,শুধু দুজনে….”

যখন কোনো উপলক্ষে খুব সেজে বারবার আয়নায় নিজেকে দেখে চলেছি, আর ভাবছি সবকিছু ঠিক হয়েছে তো ?
আমার মনের আয়নায় তখন, তুমি ওঠো ভেসে। সেই কল্পনার আয়নায় দুটি চোখ মুগ্ধ হয়ে, শুধুমাত্র আমার দিকেই চেয়ে থাকে, পরিপূর্ণ ভালোবাসার দৃষ্টি নিয়ে।

আমাকে সুসজ্জিত অবস্থায় দেখে সকলে যখন নানান মন্তব্য করে, চোখের ভাষায় নানা কথা বলে—আমি তখন শুধুমাত্র মনে মনে অধীর আগ্রহে তোমার চোখের ভাষা পড়তে, তোমার মিষ্টি প্রশংসা শুনতে, তোমার একটু কাছে আসতে চাই ।

যখন ঘরে বাইরে চারিদিকে অশান্তি, নানান কথার জ্বালায় জর্জরিত, আনন্দ ও হাসি উড়ে যায় জীবন থেকে, বেঁচে থাকার সমস্ত ইচ্ছা চলে যায় মন থেকে, মনে হয় নীরব যন্ত্রণা কুঁরে কুঁরে খাচ্ছে, প্রাণ ভরে কেঁদে শান্তি পেতে চায় মন—ঠিক তখনই সবকিছু ছেড়ে, তোমার বুকের মাঝে মুখটি গুজে অবিরাম ধারায় অশ্রু বিসর্জন করে ফিরে পেতে চাই শান্তি।
তুমি বলো, ” আমি তোমার সাথেই আছি সবসময় চিরদিন- চিরকাল।”

যখন প্রচন্ড ভিড়ে কোথাও যেতে বাধ্য হয়েছি, সকলের লোলুপ হাত এগিয়ে আসছে নিজের দিকে, নিজের পবিত্রতা রক্ষা করা তীব্রতম কঠিন, তখন তোমার সুদৃঢ় বাহুবন্ধনের মধ্যে নিজেকে সম্পূর্ণভাবে সঁপে দিয়ে চরম নিশ্চিন্ত হতে চাই।
তখন মনে হয় সমস্ত ভার তোমার।
আমি তো সম্পূর্ণভাবে নিজেকে তোমার কাছে সমর্পণ করেছি। কারো শক্তি নেই আমাকে স্পর্শ করার। আমি যে তোমার মাঝেই নিজেকে আড়াল করেছি গো।

যখন কঠিনতম রোগযন্ত্রণায় জর্জরিত, বড় থেকে আরো বড় ডাক্তার দেখে, পরীক্ষা করে, নানাবিধ ঔষধ দিয়ে চলেছেন, কিছুতেই সুস্থ হচ্ছি না, তীব্রতম যন্ত্রণায় ছটফট করছি, তখন তুমি এসে বলো,
” কিছু ভেবো না। সব ঠিক হয়ে যাবে। যে পৃথিবীতে আমি আছি-নিঃশ্বাস নিচ্ছি, সেখানে তুমি থাকবে না–হতেই পারে না কখনো। তুমি আমার পাশে, আমার সাথে সুস্থ হয়ে ততদিন থাকবে—যতদিন আমি থাকবো এই সুন্দর পৃথিবীতে।”
আমি ঠিক তখনই দ্রুত আরোগ্য লাভ করতে শুরু করি।

” তুমি আমার জীবন গো,
যে জীবনে বাঁচি গো,
আমি সেই জীবনের হৃদয়,
তোমার মাঝেই আছে”

খুব কাজের চাপে যখন বাড়ি ফিরতে অনেক দেরী হয়ে যায়, আমার দুচোখ পথের দিকে চেয়ে তোমার ফেরার অপেক্ষা করে, কান শুনতে চায় তোমার দরজা খোলার আহ্বান, পাছে ভীষণ চিন্তা করে আমি অসুস্থ হয়ে পরি—তাই মাঝে মাঝেই ফোন করে মিষ্টি হেসে যখন বলো, “একেবারে অবুঝ হোয়ো না। আমি সুস্থ আছি, ভালো আছি। যতটা তাড়াতাড়ি সম্ভব ফেরার চেষ্টা করছি। ”
তখন এক অব্যক্ত আনন্দে হৃদয় ভরে ওঠে। সমস্ত উৎকন্ঠার হয় অবসান।

যখন সকলকে খাবার পরিবেশন করে নিজের জন্য আর কিছুই অবশিষ্ট নেই বা কিছুই খাবার ইচ্ছা নেই শরীর অথবা মনের কারণে,
তুমি তখন বলো, “এসো আমার খাবার দুজনে ভাগ করে খাই, তুমি না খেলে আমি যে খেতে পারবো না, তুমি অভুক্ত থাকলে, আমার ভোজন যে অসম্পূর্ণ !”
নিজের হাতে ভালোবাসায় খাবার মেখে, খাবারের গ্রাস তুলে দাও আমার মুখে, তখন পরম আনন্দ মিশ্রিত তৃপ্তিতে আমার হৃদয় ভরে ওঠে পরিপূর্ণ রূপে।

যৌবন যখন হারিয়ে যাবে দেহ থেকে চিরতরে, সকলে বিমুখ হবে কাছে আসতে কথা বলতে, তখনও আমি অপেক্ষা করে থাকবো প্রতিটি মুহূর্ত তোমার সাথেই অনর্গল কথা -গল্প -স্মৃতিচারণ করতে।

প্রতিটি মুহূর্তে ঈশ্বরের কাছে একটিই প্রার্থনা, পরপারে একান্তই নিজের আলয়ে ফিরে যাবার সময়ও যেন দুজনের বিচ্ছেদ না ঘটে।

“তুমি”
আমার ভালোবাসা, আমার সৌভাগ্য, আমার একান্ত আপনার, সবচাইতে মূল্যবান, দূর্লভ। আমার জীবনে ঈশ্বরের অমূল্য দান ” তুমি “।

” তুমি আমার নয়ন গো,
যে নয়নে দেখি গো,
আমি সেই নয়নের মনি,
স্বপ্ন নিয়ে থাকি। ”

 

লিপিকা দত্ত সরকার,কোলকাতা

রচনা কাল _ 15. 9. 2018

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 nobopotro.Com
Desing BY AKM SUMON MIAH